সুস্বাস্থ্য.কম

সুস্থ্য দেহ ও সতেজ মনের জন্য...

  • Increase font size
  • Default font size
  • Decrease font size
নাক, কান ও গলা'র অসুখ-বিসুখ, চিকিৎসা ও পরামর্শ

সাইনুসাইটিস (Sinusitis)

E-mail Print

মুখমন্ডল ও মস্তিস্কের হাড়কে হাল্কা করার সুবিধার্তে এর ভেতরে কিছু বায়ুকুঠুরি আছে যার নাম সাইনাস (Sinus)আর এর প্রদাহ বা ইনফ্লামেশন এর জন্য যেই রোগটি হয় তাই আমাদের অতিপরিচিত সাইনুসাইটিস(Sinusitis)

মাথার হাড়ে এমন চারটি সাইনাস রয়েছেএর মধ্যে ম্যাকজিলারি ওফ্রন্টাল সাইনাস দুটি বড় তাই রোগ ও এতে বেশী হয়। এরা নাকের গর্তে গিয়ে শেষ হয়। মাথার হাড়ের ওজন কমানো ছাড়াও মানুষের মুখের শব্দকে ভারী এবং কিছুটা নাসিকাময় করায় এদের ভূমিকা আছে।

বিস্তারিত...
 

এডেনয়েড (Adenoid)

E-mail Print

এডেনয়েড একধরনের টনসিল, এর অবস্থান নাকের গভীরে একদম পেছনের দিকে গলার উপরিভাগে। এর প্রদাহ বা ইনফ্লামেশন হলে এটা বড় হয়ে যায় এবং নানাবিধ সমস্যা ও উপসর্গের আবির্ভাব ঘটে। বাচ্চাদের এডেনয়েড বড় হয়ে গেলে তাদের শ্বাসকষ্ট হয় এবং তাদের নাকের বদলে মুখ (Mouth breather) দিয়ে শ্বাস নিতে দেখা যায়। এজন্য বাচ্চারা খেতে চায়না এবং তাদের স্বাস্থ্য খারাপ থাকে। এডেনয়েড বড় হলে গলার স্বর পরিবর্তিত হতে পারে এবং বাচ্চা কানে কম শোনা শুরু করে। এ ধরনের শিশুদের কানপাকা (Otitis Media) রোগ হবারও সুযোগ থাকে। অনেকদিন ধরে এ রোগে ভূগতে থাকলে এক সময় শিশুটির মুখ দিয়ে সবসময় লালা ঝরে পরতে থাকে (Drooling)। দাঁত উচু নিচু হয়ে যাওয়া, নাক বোঁচা হয়ে যাওয়া, চেহারা বোকা বোকা হয়ে যাওয়া, রাত্রে বিছানায় প্রসাব করে দেয়া (Enuresis) এসব উপসর্গও কালক্রমে একসময় শিশুটির কষ্টের কারণ হয়ে উঠতে পারে।

বিস্তারিত...
 

কেমোডেকটোমা / নিউরোজেনিক টিউমার

E-mail Print

খুব উচূ স্থানে বা পাহাড়ে বসবাস করে এমন লোকজনেরই সাধারনত এই টিউমারটি হতে দেখা যায়। ৪০ বছরের আগে এই টিউমার হবার সম্ভাবনাও খুব কম। গলার মাঝামাঝি, যে কোন এক পাশে এই টিউমারটি হতে দেখা যায়। এটা নিরীহ শ্রেনীর একটি টিউমার আর তাই অনেকদিন ধরে খুব অল্প অল্প করে এটা বড় হতে থাকে। বড় হলে এটা জলপাই এর মতো হয় এবং ধরলে রবারের মতো হাল্কা শক্ত মনে হয় এবং নাড়ির স্পন্দন এর সাথে সে লাফাতে থাকে।

বিস্তারিত...
 

টনসিলাইটিস (Tonsillitis)

E-mail Print

বাচ্চাদের গলায় ব্যথা হলেই আমরা বলে দেই - "তোমার তো টনসিল হয়েছে"। অমনিই জোটে এটা খাবেনা, ওটা করবেনা এমন একগাদা উপদেশ। তো এই টনসিল টা কী? টনসিল হলো আমাদের শরীরের প্রতিরোধ ব্যবস্থার একটা অংশ এবং আমাদের মুখের ভেতরেই চারটি গ্রুপে তারা অবস্থান করে। এদের নাম যথাক্রমে লিঙ্গুয়াল, প্যালাটাইন, টিউবাল এবং এডেনয়েড। এই টনসিল গুলোর কোনো একটির প্রদাহ হলেই তাকে বলে টনসিলাইটিস। টনসিল বলতে আমরা সচরাচর যা বুঝি তা কিন্ত আসলে টনসিলাইটিস। আর প্যালাটাইন টনসিলটিই প্রদাহ সৃষ্টি করে আমাদের গলা ব্যথা জাতীয় সমস্যায় ফেলে সবচেয়ে বেশী।

বিস্তারিত...
 

ব্রাঙ্কিয়াল ফিস্টুলা (Branchial Fistula)

E-mail Print

অনেক সময় শিশুদের এমনকি কৈশোরেও গলার নিচের দিকে প্রায় মাঝ বরাবর একটি ছোট্ট ছিদ্র দেখা যায়। এটি দিয়ে ক্রমাগত পানি অথবা পুঁজ মিশ্রিত পানি বের হতে দেখা যায়। জন্মগত এই ত্রুটিটির নামই ব্রাঙ্কিয়াল ফিস্টুলা। এটা লম্বা একটা নালীর মতো সরু একটি পথ যার ভেতরের মুখটি থাকে গলার ভিতরে, জিহবার গোড়ার দিকে এবং বাইরের মুখটি থাকে গলার বাইরের দিকে চামড়ায়। ব্রাঙ্কিয়াল ফিস্টুলা অনেক সময় গলার দুই পাশেও হতে পারে।

বিস্তারিত...
 
  • «
  •  Start 
  •  Prev 
  •  1 
  •  2 
  •  Next 
  •  End 
  • »


Page 1 of 2

সুস্বাস্থ্য সুপারিশ করুন

এই সাইটের সকল তথ্য শুধুমাত্র চিকিৎসা সংক্রান্ত জ্ঞানার্জন ও সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রকাশিত যা কোন অবস্থাতেই চিকিৎসকের বিকল্প নয়রোগ নির্নয় ও তার চিকিৎসার জন্য সংশ্লিস্ট চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া বাঞ্ছনীয়