সুস্বাস্থ্য.কম

সুস্থ্য দেহ ও সতেজ মনের জন্য...

  • Increase font size
  • Default font size
  • Decrease font size

অটো ইমিউন ডিজিজ (Auto Immune Disease)

E-mail Print

ইমিউন শব্দটির সঠিক মেডিকেল অর্থ হয়তোবা প্রতিরক্ষা। মানুষের দেহে ইমিউন সিস্টেম (immune system)নামক খুব সংবেদনশীল এবং উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন একটি প্রতিরক্ষা পদ্ধতি রয়েছে। অটোইমিউন ডিজিজ মানবদেহের এই প্রতিরক্ষা ব্যুহের একটি রোগ। চলুন আগে জেনে নেই এই ইমিউন সিস্টেম কি এবং তা কাজ করে কীভাবে।

ইমিউন সিস্টেম বা প্রতিরক্ষা বুহ্য খুবই ত্বরিত গতিতে প্রায় সব ধরনের ব্যাকটেরিয়া ভাইরাস এবং অন্যান্য জীবানু কে সনাক্ত করতে এবং ধ্বংস করে দিতে পারে। কোন কারণে যখন এটা ব্যর্থ হয় কেবল মাত্র তখনই শরীর জীবানু দ্বারা রোগাক্রান্ত হতে পারে। শক্তিশালী ইমিউন সিস্টেমের কারণেই আমরা ট্রিলিয়ন ট্রিলিয়ন এবং তার ও অধিক জীবানু পরিবেষ্টিত থাকা সত্তেও খুব কম সময়েই ইনফেকশন (infection)এর কবলে পড়ি

তবে হ্যা, কিছু কিছু রোগ আছে যা আমাদের ইমিউন সিস্টেম কে দুর্বল করে এর কার্যকারিতা হ্রাস করে দেয়, কিছু কিছু আবার একে একদম শেষ করে দেয়। কিছু কিছু অসুধ সেবনের কারনেও ইমিউন সিস্টেম দুর্বল এবং অকার্যকর হতে পারে। ইমিউন সিস্টেম দুর্বল এবং অকার্যকর হবার কারনে মানবদেহ অতি সহজেই যে কোন জীবানুর সংক্রামনে জরাগ্রস্থ এবং ধরাশয়ী হতে পারে।

বিস্তারিত...
 

ধুমপান ত্যাগে করণীয়

E-mail Print

সবার আগে নিজের মন থেকে সব যুক্তিগুলো সাজিয়ে নিয়ে সীদ্ধান্ত নিন, মনকে দৃঢ করুন, ইচ্ছা শক্তি বাড়ান। আপনার ব্যক্তিত্বের শক্তিশালী দিকগুলো নিজের কাছে তুলে ধরুন এবং ঠিক করুন আজ থেকেই ছেড়ে দিচ্ছেন ধুমপান। বাসায়, ড্রয়ারে বা পকেটে সিগারেট থাকলে তা কোনোরকম দ্বিধা না করে এখনই ফেলে দিন, শুরু হোক আপনার সাহসী পথ চলা।

যে সকল স্থানে ধুমপান নিষিদ্ধ সে সকল স্থানে (সেটা হতে পারে মসজিস, যাদুঘর, লাইব্রেরী অথবা আপনার অফিসের কক্ষ অথবা হাসপাতালে) আপনার মূল্যবান সময় কাটান। ক্যান্সার আক্রান্ত আত্মীয়স্বজন থাকলে তাদের সাথে অনেক সময় কাটান। হাসপাতালো কোন পরিচিত রোগী ভর্তি থাকলে আপনার স্বার্থেই তাকে সংগ দিন। আত্মীয়দের কবরস্থানে নিরিবিলি সময় কাটাতে পারেন।

বিস্তারিত...
 

ধুমপান ত্যাগের উপকারীতা

E-mail Print

মনে রাখবেন ধুমপায়ীর শরীরের তাপমাত্রা অধুমপায়ীদের চেয়ে একটু বেশী থাকে এবং ধুমপান ত্যাগের ২০মিনিটের মধ্যেই আপনি লক্ষ্য করবেন আপনার তাপমাত্রা স্বাভাবিক পর্যায়ে নেমে আসা শুরু করেছে, ২০ মিনিটের মধ্য আপনার রক্তের কার্বন মনোক্সাইড (carbon mono oxide) নামক বিষাক্ত রাসায়নিকের মাত্রা অর্ধেকে নেমে আসে, ২৪ ঘন্টা ধুমপান থেকে বিরত থাকলে আপনার হৃদরোগ (heart attack) হবার ঝুকি ধীরে ধীরে কমতে শুরু করে।ধুমপান ত্যাগের ১৫দিন থেকে তিন মাসের মধ্যে আপনার ফুসফুসের কার্যক্ষমতা ৩০ শতাংশ বেড়ে যাবে এবং শরীরের সর্বত্র রক্তপ্রবাহ বৃদ্ধি পাবে,  ধুমপান ত্যাগের ১ বছরের মধ্য আপনার হৃদরোগে আক্রান্ত হবার ঝুকি অর্ধেকে নেমে আসবে।

বিস্তারিত...
 

ধুমপান ত্যাগ করুন

E-mail Print

তামাক ও তামাকজাত দ্রব্য মানবদেহের জন্য ভয়ঙ্কর এক বিষ। এর বিষাক্ত উপাদান গুলো একবারে ক্ষতি না করে ধীরে ধীরে ক্ষতি করে তাই অনেক সময়ই তামাক ব্যবহারকারীরা এর অপকারীতা সম্পর্কে উদাসীন থাকে। একটি সিগারেট বা বিড়ি তে প্রায় সাত হাজার এর ও বেশী বিষাক্ত রাসায়নিক উপাদান থাকে, এসব যদি ইঞ্জেকশনের মাধ্যমে শরীরে ঢোকানো হতো সাথে সাথেই মানুষের মৃত্যু হতো।

তামাকপণ্যের মধ্যে সিগারেট এর প্রচলন বেশী হলেও জর্দা, গুল, সাদাপাতা এবং নস্যি ও তামাকজাত পন্য এবং এসব আমাদের দেশে বহুল প্রচলিত নেশাকারি দ্রব্য। সাম্প্রতিক গবেষনায় দেখা গেছে তামাক সেবনের ফলে বিশ্বে প্রতিবছর প্রায় চল্লিশ লক্ষ লোক মৃত্যু বরণ করছে, যার অর্থ গড়ে প্রতি দশ সেকেন্ডে একজন মানুষের মৃত্যু হচ্ছে তামাকের বিষক্রিয়ায়।

বিস্তারিত...
 

বার্ধক্য

E-mail Print

কেবল বয়স বাড়ার মানেই কি বৃদ্ধ হয়ে যাওয়া? তাই যদি না হয় তাহলে কখন আমরা ধরে নেব যে আমরা বৃদ্ধ হয়ে গেছি? একেক জন কি একেক বয়সে বৃদ্ধ হয়? আমাদের কি বৃদ্ধ হতেই হবে? এমন অসংখ্য প্রশ্নের ভারে মধ্যবয়সী কারো মন উদাসী হয়ে উঠাটা অস্বাভাবিক নয়। তবে দুঃখজনক হলেও সত্যি যে আমরা কেন বৃদ্ধ হই তার সঠিক উত্তরটা এখনো আমাদের জানা হয়ে উঠেনি।

বয়স বাড়ার সাথে সাথে যখন এই শরীরটির নানা প্রতিকুলতার সাথে লড়াই করার সক্ষমতা লোপ পায় এবং বার্ধক্যজনিত রোগগুলো শরীরে বাসা বাধতে শুরু করে তখনই ধরে নিতে হবে আমরা বার্ধক্যে পৌছে গেছি। তাই বার্ধক্যে পৌছুবার বয়স জনে জনে ভিন্ন হতেই পারে।

বিস্তারিত...
 



সুস্বাস্থ্য সুপারিশ করুন

এই সাইটের সকল তথ্য শুধুমাত্র চিকিৎসা সংক্রান্ত জ্ঞানার্জন ও সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রকাশিত যা কোন অবস্থাতেই চিকিৎসকের বিকল্প নয়রোগ নির্নয় ও তার চিকিৎসার জন্য সংশ্লিস্ট চিকিৎসকের পরামর্শ নেয়া বাঞ্ছনীয়